জেলা দক্ষিণবঙ্গ প্রথম পাতা লগডাউন

পথচলতি মানুষকে গোলাপ ফুল দিয়ে করোনা সচেতন করতে অভিনব উদ‍্যোগ পুলিশ প্রশাসনের।

কোলাঘাটঃঃ বর্তমান গোটা বিশ্বের অন্যতম ত্রাস নোভেল করোনাভাইরাস। আর এই ভাইরাসের প্রভাবে ইতিমধ্যে গোটা দেশে লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে। যার ফলে সরকারের তরফ থেকে সাধারণ মানুষকে ঘরবন্দি থেকে করোনা নিয়ে সচেতন হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু জেলার বিভিন্ন জায়গায় দেখা যাচ্ছে এই নির্দেশ অমান্য করে একাংশ মানুষ অকারণে রাস্তায় ঘোরাঘুরি করছেন। যার ফলে সরকারি নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে করোনা সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় থেকেই যাচ্ছে। তাই এই ধরনের পথচলতি মানুষদের এবার সচেতন করতে অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করল পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মেচেদার বন্ধুরা সহযোগিতায় কোলাঘাট থানা ও শান্তিপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এর প্রধান। বৃহস্পতিবার তারা মেচেদার বিভিন্ন প্রান্তে পথচলতি মানুষদের গোলাপ ফুল দিয়ে করোনা নিয়ে সচেতন করেন এবং রাস্তায় না বেরোনোর জন্য অনুরোধ রাখেন তাদের কাছে।
লক্ষ্য মানুষের জন্য কাজ করা, করোনায় মানুষের জীবন বাঁচানো। আর যার জন্য সাধারণ মানুষকে সচেতন করা সর্বাগ্রে প্রয়োজন। ইতিমধ্যে সরকারের তরফ থেকে নির্দেশিকায় সাধারণ মানুষকে ঘরবন্দি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এবং কেন্দ্রীয় সরকার পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তে করোনা পজেটিভ বেশ কিছু আক্রান্ত রুগীর খোঁজ পাওয়া গিয়েছে সেই পরিপেক্ষিতে কেন্দ্র সরকার রাজ্যের বেশ কয়েক টি জেলার সঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা কেও হটস্পট ঘোষণা করেছে। কিন্তু তা মানছেই বা কে? বাজার হাট দোকান চা এর দোকানে অবাঞ্ছিত ভিড় জা সংক্রমন বেড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ।তাই এই সমস্ত মানুষদের সচেতন করতে অভিনব গান্ধীগিরি পদ্ধতি বেছে নিল মেচেদার বন্ধুরা। স্থানীয় কয়েকজন বন্ধু মিলে নিজেরা সরকারি নির্দেশ মেনে মুখে মাস্ক পরে পথচলতি মানুষদের তারা সচেতন করতে থাকে। মেচেদা থার্মাল গেট, মেচেদা সেন্ট্রাল বাস স্ট্যান্ড সহ বিভিন্ন এলাকায় তারা বৃহস্পতিবার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে পথচলতি মানুষদের হাতে গোলাপ দিয়ে সচেতন করে সহযোগিতা করেন কোলাঘাট থানার পুলিশ আধিকারিক শান্তিময় নন্দী ও শান্তিপুর এক নাম্বার গ্রাম পঞ্চায়েত এর প্রধান সেক সেলিম আলি । পথ চলতি মানুষ মহিলা বাইক আরোহী বাস চালক গাড়ি চালক দের হাতে গোলাপ ফুল দিয়ে করোনা সংক্রমন ঠেকাতে সচেতনতা বার্তা দেন । আর সবাই আবেদন করেন জে খুব প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে কেউ বেরোবেন না। বাড়িতে থাকুন সুস্থ থাকুন সরকারি ও স্বাস্থ্য দফতর এর নিয়ম মেনে চলুন। বন্ধুদের এই ধরনের উদ্যোগে সাধুবাদ জানিয়েছে স্থানীয় শান্তিপুর ১ পঞ্চায়েতের প্রধান শেখ সেলিম আলী ও কোলাঘাট থানার এএসআই শান্তিময় নন্দী। বৃহস্পতিবার বন্ধুদের এইরূপ অভিনব সচেতনতামূলক কর্মসূচি দেখে এগিয়ে আসে তারা। পঞ্চায়েত প্রধান শেখ সেলিম আলী ও এএসআই শান্তিময় নন্দী নিজেই গোলাপ নিয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করেন। মেচেদার কয়েকজন বন্ধু মিলে লকডাউনের শুরু থেকেই ২৪ দিন ধরে দুবেলা রান্না করা খাওয়ার খাইয়ে আসছেন এলাকার ভবঘুরে ভিক্ষুক মেছেদা সেন্ট্রাল বাস স্ট্যান্ড এ আটকে থাকা যাত্রী ও এলাকার শারমেয় দের।সাধারণ মানুষের মুখে অন্ন তুলে দিতে এগিয়ে আসে। বর্তমানে তারা ইতিমধ্যে ২৪ দিন গরীব দুস্থ সাধারণ মানুষের মুখে অন্ন তুলে দিয়েছেন এবং আগামী দিনেও তাদের মুখে প্রত্যেকদিন অন্ন তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছেন। এছাড়াও মুমূর্ষু রোগীর রক্তের অভাবে মৃত্যু আটকাতে এই বন্ধুদের আয়োজনেই রক্তদান শিবিরেরও আয়োজন করেছেন। সবমিলিয়ে বলা চলে মেচেদার এই বন্ধুদের উদ্যোগে এখন অভিভূত সকলে। কোলাঘাট থানার এএসআই শান্তিময় নন্দী বলেন, “এটাই বন্ধুত্বের নজির। মানুষ সচেতন হোক এটাই আমরা চাই”।

Spread the love