করোনা প্রথম পাতা রাজ্যের খবর

বাংলায় আক্রান্ত ৩৩৪, সুস্থ হয়ে ফিরলেন ২৪ ।

একদিনে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলল। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫৮ জন। তবে, একদিনে ছাড়াও হয়েছে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষকে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা-মুক্ত হয়ে ছাড়া পেয়েছেন ২৪ জন। এদিন নবান্নে মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা বলেন, রাজ্যে এই মুহূর্তে অ্যাক্টিভ করোনা রোগীর সংখ্যা ৩৩৪। মোট করোনা-মুক্ত ব্যক্তির সংখ্যা ১০৩। নতুন করে করোনায় মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেনি বলেই জানিয়েছেন মুখ্যসচিব। অর্থাৎ বাংলায় এখনও পর্যন্ত করোনায় মৃত ১৫।

মুখ্যসচিব এদিন আরও জানান, রাজ্যের ১২টি ল্যাবে এখন করোনা টেস্ট চলছে। করোনা চিকিৎসার জন্য মোট ৬৬টি হাসপাতাল প্রস্তুত রয়েছে রাজ্যে। এদিন রাজীব সিনহা যে তথ্য দেন, তাতে মালদায় মোট ১২০ জনের করোনা টেস্ট হলেও প্রত্যেকের রিপোর্টই নেগেটিভ এসেছে।

তবে, একদিনে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত ধরা পড়লেও তাতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই বলেই জানিয়েছেন মুখ্যসচিব। তিনি বলেন, যে নতুন ৫৮ জনের শরীরে করোনা ধরা পড়েছে, তাঁদের মধ্যে ২২ জন করোনা রোগীর পরিবারের অন্তর্গত। বাকি ৩৬ জন নতুন আক্রান্ত। তবে, কলকাতা যে এখন রীতিমতো চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াচ্ছে, তাও বলেন তিনি। লকডাউন আরও কঠোর করার কথাও জানান তিনি। এদিন যে ব্যক্তিরা নতুন আক্রান্ত হয়েছেন, তার সিংহভাগই কলকাতার। এছাড়াও রয়েছে হাওড়া ও উত্তর ২৪ পরগনার বাসিন্দারা।

কেন্দ্রীয় দলের এ রাজ্যে আসা প্রসঙ্গেও মুখ্যসচিব বলেন, ‘কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল আসা নিয়ে প্রতিবাদ করলেও সব সহযোগিতা করেছি। যা তথ্য চেয়েছিল দিয়েছি। এরপর যা চাইবে আমরা করে দেব। এখন ওঁরা কদিন থাকবেন সেটা ওঁরা জানেন। ওরা তো বিএসএফ ও এসএসসি গেস্ট হাউসে রয়েছেন। আমাদের আথিতেয়তায় নেই।’ মুখ্যসচিব জানান, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল ইনফরমালি জানিয়েছে কলকাতায় লকডাউন ভালো হচ্ছে। এমনকী হাসপাতালেও প্রটোকল মেনে কাজ করছে বলেও জানিয়েছেন। যদিও মুখ্যসচিব জানান, ‘কেন্দ্রীয় দলের এই বক্তব্যর সমর্থনে আমার কাছে কোনও প্রমাণ নেই।’

Spread the love