কলকাতা জেলা প্রথম পাতা

আমার সকাল: পুজো শেষেও নাছোড় বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিনিধি— দুর্গাপুজো শেষ হলেও বর্ষা বিদায় নেওয়ার কোনও লক্ষণই নেই। একাদশীর সকাল থেকেই সর্বত্র আকাশ মেঘলা। আকাশের মুখ ভার। এদিন কাকভোর থেকেই কলকাতা-সহ বিভিন্ন এলাকায় শুরু হয়েছে বৃষ্টি। সঙ্গে বইছে ঝোড়ো হাওয়াও। বিভিন্ন জেলার বেশ কিছু জায়গায় ইতিমধ্যেই জল জমে গেছে বলে খবর।হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, আজ বুধবার উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। পুজোর পর একাদশীতেও রাজ্যের প্রায় সর্বত্র হালকা ও মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এ দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মেঘলা আকাশ। বাতাসে আর্দ্রতা থাকায় ভ্যাপসা গরম থাকবে বলে জানা গিয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, ঝাড়খণ্ডের উপর একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি সক্রিয় রয়েছে মৌসুমী বায়ুও। এই দুইয়ের জেরেই বৃষ্টি হচ্ছে দক্ষিণবঙ্গে। বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে উত্তরের জেলাগুলিতেও। আজ সারাদিনই দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হতে পারে কলকাতাতেও। প্রভাব পড়বে উপকূলের জেলাগুলিতেও। বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। এ বছর নির্ধারিত সময়ের তুলনায় বেশ খানিকটা দেরিতে এসেছে বর্ষা। তাই যে সময়ে বাংলা থেকে বর্ষার বিদায় নেওয়ার কথা, সেই সময়েই ঘাটতি মেটাচ্ছে সক্রিয় মৌসুমী বায়ু।

যদিও নয়াদিল্লির মৌসম ভবন ঘোষণা করেছে, দেশ থেকে বর্ষার বিদায়লগ্ন হাজির। আগামী দু’দিনের মধ্যে দেশের উত্তর-পশ্চিম প্রান্ত থেকে বর্ষা বিদায় নিতে শুরু করবে। তার পর ধাপে ধাপে বাকি দেশ থেকে বর্ষা বিদায় নেবে। আবহাওয়া দফতরের অধিকর্তা গণেশকুমার দাস জানান, আগামী কয়েক দিন বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টি মিলতে পারে।