করোনা দেশ প্রথম পাতা

মহারাষ্ট্র থেকে পঞ্জাবে ফেরা ১৭৩ শিখ তীর্থযাত্রী কোভিড পজিটিভ ।

মহারাষ্ট্র থেকে ফেরার পরে ১৭৩ জন শিখ তীর্থযাত্রীর নমুনা পরীক্ষায় কোভিড ১৯ পজিটিভ এল। এই আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় চিন্তায় পড়েছে পঞ্জাব প্রশাসন। জানা গিয়েছে, করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে লকডাউন হওয়ায় মহারাষ্ট্রের নান্দেদে হাজুর সাহিবে আটকে পড়েছিলেন এই শিখ তীর্থযাত্রীরা। ২২ এপ্রিল থেকে অনুমতি নিয়ে পঞ্জাবে ফেরা শুরু করেন তাঁরা। কিন্তু রাজ্যে ফিরলেও পাঁচ দিন পরে তাঁদের কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয় বলে খবর।তীর্থযাত্রীদের মধ্যে কোভিড ১৯ ভাইরাস পাওয়া যাওয়ার পরে নান্দেদের হাজুর সাহিব গুরুদ্বারকে সম্ভাব্য করোনা হটস্পট বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। অবশ্য গুরুদ্বার কমিটির তরফে জানানো হয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী সামাজিক দূরত্ব পালন করা হয়েছিল। কিন্তু তার আগেই সংক্রমণ ছড়িয়ে থাকতে পারে। পঞ্জাবের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বলবীর সং সিধুর বক্তব্য, “মহারাষ্ট্র সরকার এই তীর্থযাত্রীদের কোনওরকমের সাহায্য করেনি। নিজেদের ব্যবস্থা তাঁদেরই করে নিতে হয়েছিল। এমনকি তীর্থযাত্রীদের নমুনা পরীক্ষাও করেনি মহারাষ্ট্র সরকার।” জানা গিয়েছে, লকডাউনের ঠিক আগে পঞ্জাব থেকে প্রায় ৪০০০ শিখ তীর্থযাত্রী নান্দেদে গিয়েছিলেন। ২৫ মার্চ লকডাউন হওয়ায় তাঁরা আটকে পড়েন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অনুমতির পরে ৩৫০০-র উপর তীর্থযাত্রী পঞ্জাবে ফিরেও গিয়েছেন। তাঁদের মধ্যেই এই আক্রান্তদের খোঁজ মিলেছে। এই মুহূর্তে পঞ্জাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৩৯। তার মধ্যে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

Spread the love