দেশ প্রথম পাতা

লোকসভা ভোটের অভিনন্দনের ছবি ব্যবহার করা যাবে না! ফেসবুককে নির্দেশ নির্বাচন কমিশনের

নিজস্ব প্রতিনিধি : আগেই কমিশনের তরফে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয়েছিল, কোনও রাজনৈতিক প্রচারে বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের ছবি ব্যবহার করা যাবে না। লোকসভা ভোট প্রচারে সেনাবাহিনীকে ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করছিল নির্বাচন কমিশন। তবে ফেসবুকে দলের নেতারদের সঙ্গে ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দনের ছবি দিয়ে প্রচার চালানোয় সেই পোস্ট সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন। এই প্রথম বার নির্বাচন কমিশন সরাসরি এই ব্যবস্থা নিলেন।

গত ১০ মার্চ সারা দেশে ২০১৯ শে লোকসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়ে গিয়েছে। কিন্তু তার আগে থেকেই কমিশনে অভযিোগ জমা পড়ে যায়, পাকিস্থান সেনার হেফাজত থেকে দেশে ফিরে বায়ুসেনার পাইলট অভিনন্দনের ছবি দিয়ে প্রচার চাল্লাচ্ছে একটি রাজনৈতিক দল। এই অভিযোগ পাবার পর নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণঅর আগেই কমিশনের তরফ থেকে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয়, রাজনৈতিক প্রচারে সেনাবাহনিীকে ব্যবহার করা যাবে না।

কিন্তু এত কিছুর পরেও অভিনন্দনের ছবি দিয়ে প্রচার চালাচ্ছেন দিল্লির বিশ্বাস নগরের বিধায়ক ও পি শর্মা। এই ছবিতে অভিনন্দনের সঙ্গে ছিল প্রাধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিজেপরি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এবং বিধায়কের নিজের ছবি।

এ বছর লোকসভা ভোটে সি-ভিজিল নামে সোস্যাল মিডিয়ায় একটি অ্যাপ চালো করেছে নির্বাচন কমিশন। এই অ্যাপের মাধ্যমে সাধারণ মানুষরা প্রমাণ সহ অভিযোগ করতে পারেন। সেই অ্যাপই ওই প্রচারের ছবি-হ একটি অভিযোগ জমা পড়ে কমিশনে। এই অভিযোগ পাবার পরই তড়িঘড়ি ব্যাবস্থা নেই,নির্বাচন কমিশমন

ফেসবুকের পাবলিক পলিসি ফর ইন্ডিয়া এবং দক্ষিণ এশিয়ার ডিরেক্টর শিবনাথ ঠাকরালকে ওই দু’টি পোস্ট ডিলিট করতে অথবা সরিয়ে দেওয়ার আর্জি জানায় নির্বাচন কমিশন। একই সঙ্গে বিধিভঙ্গের অভিযোগে বিধায়ক ও পি শর্মাকেও সতর্ক করে কমিশন। এর পর বিধায়কও নতুন করে পোস্ট করেন, যেখানে অভিনন্দনের ছবি নেই।

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।