জেলা প্রথম পাতা

লোকসভা নির্বাচনী প্রচারে সোশ্যাল মিডিয়ায় কড়া নজরদারি চালাবে প্রশাসন: জেলাশাসক

নিজস্ব প্রতিনিধি : এবার লোকসভা নির্বাচনে কড়াকড়ি পদক্ষেপ নিচ্ছে প্রশাসন। এবার ভোটের প্রচারে সোশাল মিডিয়াতেও কড়া নজরদারি চালাবে প্রশাসন। মনোনয়ন পেশের সময় প্রার্থীদের সোশাল মিডিয়ায় নিজস্ব কোনও অ্যাকাউণ্ট আছে কিনা তা লিখিতভাবে জানাতে হবে। প্রত্যেক প্রার্থী ওইসব অ্যাকাউণ্টে কিভাবে ভোটের প্রচার চালাচ্ছে তা পুঙ্খানুভাবে দেখা হবে।সোমবার এক হাওড়ায় এক সাংবাদিক সম্মেলন করে একথা জানালেন হাওড়ার জেলাশাসক চৈতালি চক্রবর্তী। ইতিমধ্যেই মিডিয়া মনিটারিং সেল খুলে কোন মিডিয়ায় ভোট সংক্রান্ত কি খবর পরিবেশন করা হচ্ছে তা দেখা শুরু হয়ে গেছে। সোমবার এক সাংবাদিক বৈঠকে হাওড়ার জেলাশাসক চৈতালি চক্রবর্তী একথা জানান।তিনি  বলেন,  কোথাও কোনও ফেক নিউজ সম্প্রচারিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এক্ষেত্রে প্রার্থীদেরও মনোনয়ন পেশের সময় তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়ার অ্যাকাউণ্টের বিষয়ে তথ্য নির্বাচন কমিশনকে জানাতে হবে।Image may contain: one or more people and outdoor

নির্বাচন কমিশন সূত্রের খবর এতদিন প্রার্থীদের সমর্থনে আয়োজিত সভা বা মিটিং-মিছিলের ছবি ক্যামেরাবন্দী করে রাখা হত। এবার থেকে এর পাশাপাশি সোশাল মিডিয়াতেও প্রার্থীরা কি প্রচার চালাচ্ছেন তার আর্থিক হিসাব সহ নথি প্রশাসনকে জানাতে হবে। এছাড়াও সোশাল মিডিয়ার মাধ্যামে কোনও ‘ফেক নিউজ’ ছড়ানো হলে তৎক্ষণাৎ আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে জেলাশাসক জানান ভোট সংক্রান্ত কোনও বিষয় নিয়ে কোনও নাগরিক ‘সিভিজিল’ অ্যাপের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানাতে পারবে। কোনও অডিও বা ভিডিও ক্লিপিং তুলে ওই অ্যাপের মাধ্যমে ৫ মিনিটের মধ্যে পাঠালে তা খতিয়ে দেখে দ্রুত উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এছাড়া ১৯৫০ টোল ফ্রি হেল্পলাইন নাম্বারেও কেউ ফোন করে ভোট সংক্রান্ত অভিযোগ জানানো যাবে। দুটি ক্ষেত্রেই অভিযোগকারীর পরিচয় গোপন থাকবে। এদিন জেলাশাসক আরও বলেন কোনও সরকারি প্রতিষ্ঠান বা সম্পত্তিতে দেওয়াল লিখন করা যাবে না। বেসরকারি কোনও জায়গায় দেওয়াল লিখন করতে গেলে সংশ্লিষ্ট মালিকের কাছ থেকে রাজনৈতিক দলগুলিকে অনুমতিপত্র ( নো-অবজেকশন) নিতে হবে। এবার হাওড়া জেলায় মোট ভোটারের সংখ্যা ৩৭ লাখ ৮৮ হাজার ৭৭৯ জন। ৭ টি সহায়ক বুথ সহ মোট বুথের সংখ্যা ৪৩১৬টি। জেলাশাসক বলেন সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন করতে সবরকম পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার জেলা প্রশাসন এই ব্যাপারে আলোচনার জন্য সর্বদলীয় বৈঠক ডেকেছে।জেলাশাসক চৈতালি চক্রবর্তী আরও  জানান, সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধির সঙ্গে বৈঠক করবেন জেলাশাসক। ১০ এপ্রিল থেকে ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত মনোনয়ন পেশ করা যাবে। ২০ এপ্রিল স্ক্রুটিনি হবে। আর ২২ এপ্রিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ।

 

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।