জেলা প্রথম পাতা

রাজ্যে ১৫ হাজারের কর্মসংস্থানের সুযোগ হতে চলেছে: অমিত

নিজস্ব প্রতিনিধি— লোকসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণার আগে শেষ মন্ত্রিসভার বৈঠকে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। রাজ্যে প্রায় ১৫ হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য কুলপি বন্দর এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য জমির ছাড়পত্র দিতে চলেছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের অর্থমন্ত্রী তথা শিল্পমন্ত্রী অমিত মিত্র বলেন, পিপিপি মডেলে তৈরি হতে চলা প্রস্তাবিত কুলপি বন্দরে প্রায় ১০ হাজার মানুষের প্রত্যক্ষভাবে কর্মসংস্থান হবে। পাশাপাশি ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পের জন্যও ৩৭টি জমির ছাড়পত্র দেওয়ার জন্য বৃহস্পতিবারের মন্ত্রিসভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এখানেও ৫ হাজার জনের কাজের সুযোগ থাকবে।

প্রসঙ্গত কুলপি বন্দর তৈরির প্রকল্পটি প্রায় দশ-বারো বছর পড়েছিল। সম্প্রতি বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনে যোগ দিতে এসেছিল দুবাই-এর সংস্থা দুবাই পোর্ট ওয়ার্ল্ড (ডিপিওয়ার্ল্ড)। সেই সময়ই তাদের সঙ্গে কুলপি বন্দর তৈরির বরাতের বিষয়টি নিয়ে কথাবার্তা চূড়ান্ত হয়। বৃহস্পতিবারের বৈঠকে প্রস্তাবটি অনুমোদন পায়। রাজ্যের শিল্পনিগমের সঙ্গে হাত মিলিয়েই বন্দরটি তৈরি করবে ডিপিওয়ার্ল্ড। তবে এজন্য কোনও জমি অধিগ্রহণ করা হবে না। কোনও এসইজেড-এর আওতায় এই শিল্প তৈরি করা হবে না। এই প্রকল্পে অন্তত তিন হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের আশ্বাস দিয়েছে ডিপিওয়ার্ল্ড। এই বন্দরে প্রত্যক্ষভাবে ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে। এছাড়া পরোক্ষভাবে আরও অনেকে কাজ পাবেন। অন্যদিকে ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্প তালুকের জন্য রাজ্যের ৩৭টি জমির ছাড়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। এরমধ্যে বীরভূমের বোলপুরে বিশ্ববাংলা শিল্পতালুকের জন্য ২৩টি জমি চিহ্নিত করেছে রাজ্য সরকার। যেখানে কাঁথাশিল্প ও অন্যান্য কুটির শিল্পের প্রসার ঘটবে। রাজ্যের অন্যত্র বাকি ১৪টি জমির অনুমোদন দেওয়া হবে গারমেন্ট ডিজাইনিং, আলমারি তৈরি ইত্যাদি ক্ষুদ্র শিল্পের জন্য।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।