কলকাতা জেলা প্রথম পাতা

মৃত্যুর অপেক্ষায় আছি, যে কোনও দিন মৃত্যু হতে পারে! আদালতে ঢোকার মুখে বললেন সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেন

নিজস্ব প্রতিনিধি: ভোটের হাওয়া সবে উঠতে শুরু করেছে। তার মাঝেই ফের আলোচনার কেন্দ্রে সারদা কর্তা সেই সুদীপ্ত সেনই। বৃহস্পতিবার বারাসত আদালতে হাজিরা দিতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের সামনে কেঁদে ফেললেন সারদা কর্তা। সারদা মামলা শেষ হওয়া নিয়ে এত টানাপোড়েন নিয়ে সুদীপ্ত সেনকে প্রশ্ন করলে প্রথমে তিনি এড়িয়ে যান। কিন্তু শারীরিক অবস্থা নিয়ে জিজ্ঞেস করতেই বলেন, ‘আমার বেঁচে থাকার মতো কিছু নেই। মৃত্যুর অপেক্ষায় আছি, যে কোনও দিন মৃত্যু হতে পারে আমার।’ মৃত্যুর জন্য দিন গুনছেন তিনি। আদালতে ঢোকার মুখে এমন কথাই বললেন সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেন।

বৃহস্পতিবার বারাসতে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে তাঁর হাজিরার দিন ছিল। আদালতে ঢোকার মুখে সুদীপ্ত বলেন, ‘‘মৃত্যুর অপেক্ষায় আছি। যে কোনও দিন মৃত্যু হতে পারে।”সারদা মামলার বিচার প্রক্রিয়ার দেরি নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল সারদা কর্তাকে। তিনি প্রথমে কিছু বলতে চাননি। তার পর তাঁর স্বাস্থ্য নিয়ে প্রশ্ন করা হলে আচমকাই ভেঙে পড়েন তিনি। ফুঁপিয়ে কাঁদতে কাঁদতে বলেন, “মৃত্যুর অপেক্ষায় আছি।” সাংবাদিকরা সেই সময়ে সারদা মামলায় উঠে আসা রাজনৈতিক নেতাদের প্রসঙ্গ তুললে তিনি ফের বলেন, “আমার কিছু বলার নেই। সবই আমার দুর্ভাগ্য। আমার সমস্ত কেড়ে নেওয়া হয়েছে। আমার আর বেঁচে থাকার মতো কিচ্ছু নেই।”এখানেই শেষ নয়, সারদার সমস্ত সম্পত্তি বেহাত হয়ে যাওয়া নিয়ে তিনি বলেন, ‘এটা আশ্চর্যজনক’। যদিও রাজনৈতিক নেতারা বহাল তবিয়তে আছেন, এ বিষয়ে কিছু বলতে চান কিনা প্রশ্ন করলে তাঁর জবাব, ‘আমার কিছু বলার নেই। আমার দুর্ভাগ্য। বেঁচে থাকার মধ্যে কিছু নেই। আমার সব কেড়ে নেওয়া হয়েছে। সমস্ত নিয়ে নিয়েছে।’ কাকে দায়ী করবেন এর জন্য? সারদা কর্তার উত্তর, ‘কাউকে না।’

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।