প্রথম পাতা

বোলপুরে প্রচারে গিয়ে ক্ষোভের মুখে রামচন্দ্র

নিজস্ব প্রতিনিধি— ভোট এলে বাম প্রার্থীদের দেখা মেলে, আর ভোট চেলে গেলে একবারও মুখ ফিরেও দেখেন না। সিপিএম আমলে শুধু বাড়ি ছাড়া আর কিছুই পাওয়া যায়নি। এখন তাও ভাল, হয়েছে অনেক কিছু। এইভাবে প্রচারে গেলে বোলপুরের সিপিএম প্রার্থী তথা তিনবারের প্রাক্তন সাংসদকে দেখে একরাশ ক্ষোভ উগরে দিলেন বোলপুরের একটি ওয়ার্ডের বাসিন্দারা। যদিও এই ক্ষোভের কথা অস্বীকার করেছেন সিপিএমের প্রার্থী রামচন্দ্র ডোম। ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণার পরই শাসক দল তৃণমূল প্রথম তাদের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা ও প্রচার শুরু করে। রাজ্য বাম ও কংগ্রেসের জোটে জটিলতার মাঝে কে কটা আসনে লড়বে, সেই নিয়ে একটা আচলাবস্থা দেখা দেয়। কিন্তু তারপরও সিপিএম রাজ্যে তাদের এক দফা প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে। তবে দ্বিতীয় দফার তালিকায় বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়। সেখানে এবারও প্রার্থী করা হয়েছে সিপিএমের তিনবারের বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রের প্রাক্তন সাংসদ রামচন্দ্র ডোমকে।

প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতেই তিনি প্রচারের জন্য বাড়ি বাড়ি যেতে শুরু করেন। রবিবার বোলপুরের আট নম্বর ওয়ার্ডে প্রচারে যান রামচন্দ্র। ভোটারদের মুখোমুখি হতেই বিক্ষোভের মুখে পড়লেন তিনি। আট নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা টুলু ধামালের অভিযোগ, বাম শাসনকালে তারা কিছুই পাননি, কেবল বাড়িছাড়া। তিনি আরও অভিযোগ করেন যে, সারা বছর বাম নেতাদের দেখা মেলে না। শুধুমাত্র ভোটের সময় চলে আসেন ভোট চাইতে। এই ঘটনার পর সিপিএম প্রার্থী ও দলীয় কর্মীরা নানাভাবে ভোটারদের বোঝানোর চেষ্টা করেন। শুধু তাই নয়, শাসক দল তৃণমূলের দুর্নীতি ও অত্যাচারের রাজনীতির কথা তুলে ধরার চেষ্টা করলেও কাজ হয়নি। ভোটারদের দাবি, তাও এখন তো অনেকখানি ঠিক আছে। যদিও এই অভিযোগ রামচন্দ্র ডোম অস্বীকার করেছেন। টুলু ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা বলেন, বহু যুগ পরে সিপিএমের এই নেতাকে দেখলাম। কোথায় যে থাকেন উনি কে জানে! আমাদের এখানে প্রচুর সমস্যা ছিল। উনি আজ অবধি কোনও খোঁজ নিতে আসেননি। তিনবার সাংসদ হয়েছেন। একবারও আসেননি। সিপিএম আমলে কিছু বাড়ি দিয়েছিল, আর কিছু করেনি।   

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।