কলকাতা প্রথম পাতা

বিজেপির র‍্যাডারে ‘বৈশাখী’! প্রার্থী করতে চেয়ে প্রাক্তন মেয়রের বন্ধুকে ফোন ‘মুকুলের’

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজ্যের তৃণমূলকে টেক্কা দিতে ঘুটি সাজাচ্ছে বিজেপি। দিল্লির কেন্দ্রীয় নেতাদের টার্গেট ক্রমেই বেড়ে চলেছে রাজ্যের বঙ্গ নেতাদের ওপর। রাজ্যের ২২টি আসনে জেতার টার্গেট নিয়ে ময়দানে নামতে চলেছে বঙ্গ বিজেপির নেতারা। কিন্তু প্রার্থী বাছাই থেকেই তৃণমূলকে চমক দিতে চাইছে গেরুয়া শিবির। তবে বিজেপির প্রার্থী তালিকায় সেরা চমক হতে পারে প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বন্ধু বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। এত দিন জল্পনা ছিল শুধু শোভনবাবুকে নিয়ে, এ বার জল্পনার কেন্দ্রে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার তাঁকে সরাসরি লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব দিল বিজেপি।

তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিস্তর দূরত্ব তৈরি হয়েছে মাস চারেক আগে। তার পর থেকেই জল্পনা শুরু হয়েছিল যে, বিজেপি-র দিকে ঝুঁকছেন শোভন। কিন্তু বিজেপি সূত্রের খবর, শুধু শোভন নন, গেরুয়া রাডারে আরও বেশি করে রয়েছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। দিল্লির নির্দেশ মতো শনিবার সকালে বৈশাখীর কাছে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি-র প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাবও পৌঁছে গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তার পরেই অবশ্য এ দিন শোভনের বাড়িতে পৌছে গিয়েছিলেন চার তৃণমূল কাউন্সিলর।

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির ব্যাটন অলিখিতভাবে রয়েছে মুকুল রায়ের জাতেই।বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন সকালে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করেছিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। বৈশাখীকে বিজেপি এ বারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলার কোনও আসন থেকে প্রার্থী করতে চাইছে।সরাসরি এই প্রস্তাবই তাঁকে দেওয়া হয়েছে  বলে জানা গিয়েছে। এ বারের নির্বাচনে যাঁদের প্রার্থী করার কথা ভাবছে বিজেপি, তাঁদের সম্পর্কে বিশদ তথ্য দিল্লিতে পাঠানো হয়েছে। সেই তালিকায় বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামও রয়েছে বলে খবর। খোদ বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের কাছ থেকে নির্দেশ এসেছে এবং তার পরেই মুকুল রায় এ দিন সকালে তাঁকে ফোন করে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন বলে বিজেপি-র একটি অংশ জানাচ্ছে রাজনৈতিক শিবিরের একটি অংশ অবশ্য মনে করছে, বৈশাখী বিজেপি-র প্রস্তাবে রাজি না হওয়ার সম্ভাবনা বেশ জোরালো । কারণ, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে তৃণমূল নেতৃত্বের দূরত্ব এই মুহূর্তে যতটাই হোক, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি শোভনের আনুগত্য তাতে বিন্দুমাত্র টাল খায়নি বলে তৃণমূলের অনেকেই এখনও মনে করেন।তবে এখন রাজনীতির ময়দানে কি হয় তা জানার জন্য আর কয়েকদিন অপেক্ষা করতেই হবে। 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।