দেশ প্রথম পাতা

পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানরা দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছিলেন! জঙ্গি হামলায় শহিদ হননি: বিতর্কে কংগ্রেস নেতা দ্বিগ্বিজয় সিং

নিজস্ব সংবাদদাতা: গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গিহানা হয়। সিআরপিএফ কনভয়ে হাওয়া হামলায় শহিদ ৪০ জওয়ান। আহত অনেকে। পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদও হামলার দায় স্বীকার করে নেয়।পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানরা দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছিলেন! জঙ্গি হামলায় শহিদ হননি! মঙ্গলবার সকালে কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিংয়ের একটি ট্যুইটের জেরে এমনই বিতর্ক তৈরি হয়েছে।ওই ট্যুইটে দিগ্বিজয় সিং লিখেছেন, ”পুলওয়ামার দুর্ঘটনার পর দ্বিতীয়বার বায়ুসেনার এয়ার স্ট্রাইক করার পর কিছু বিদেশি মিডিয়া এ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে। এর ফলে ভারত সরকারের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে সারা বিশ্বে।”

সরকার বা বায়ুসেনা কেউ কিছু জানানোর আগেই অসমর্থিত সূত্র মারফত খবর আসে, ৩৫০ জন জঙ্গি খতম হয়েছে। বিরোধীরা দাবি করে, এই সংখ্যা মোটেও সত্য নয়। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলিতেও ক্ষয়ক্ষতির চিহ্ন অনেক কম– এই মর্মে জানানো হয়।  অনেকেই দাবি করে, সরকার নিহত জঙ্গির সংখ্যা স্পষ্ট করে জানাক। এর মধ্যেই বায়ুসেনার তরফে জানানো হয়, নিহতের সংখ্যা গোনা তাদের কাজ নয়। ও দিকে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ দাবি করেন, অন্তত ২৫০ জন জঙ্গি খতম হয়েছে।এই বিতর্কের আবহেই মঙ্গলবার সকালে টুইট করেন দিগ্বিজয় সিংহ। উল্লেখ করেন, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বায়ু সেনার এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে গোটা বিশ্বের মিডিয়া এত এত প্রশ্ন তুলে দিয়েছে যে, তার ফলে, দেশের সরকারের ভূমিকা নিয়েই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। এই টুইটেই পুলওয়ামার ঘটনাকে ‘দুর্ঘটনা’ বলে উল্লেখ করেন দিগ্বিজয়।তবে কেন কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিং এমন মন্তব্য করলেন, সেটা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বিজেপির তরফে পাল্টা আক্রমণ শুরু হয়েছে দিগ্বিজয় সিংকে উদ্দেশ্য করে।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর বলেন, ”কংগ্রেসের কী হয়েছে? দেশের জনমতের থেকে একদম উল্টো কথা বলছে। সেনাকে মিথ্যাবাদী প্রমাণ করার চেষ্টা করছে। সেনার প্রতি অবিশ্বাস করা কোনও গণতান্ত্রিক দেশেই হয় না।”

 

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।