জেলা প্রথম পাতা

পরীক্ষাকেন্দ্রে মোবাইল আনা নিষিদ্ধ! তবু সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল পরীক্ষাকেন্দ্রের ভিতরের ভিডিও

নিজস্ব প্রতিনিধি:  মোবাইলে ভিডিও রেকডিং করার অভিযোগ উঠল একাদশ শ্রেনীর ছাত্রের বিরুদ্ধে। শনিবার একাদশ শ্রেণীর পরীক্ষা চলাকালীন এই ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়গ্রাম শহরের কেকেআই ইন্সটিটিউটে। ভিডিও রেকডিং করার পর তা ফেসবুকে আপলোড করা হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠে ছাত্রদের বিরুদ্ধে। ঘটনার খবর পেয়ে ইতিমধ্যে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তদন্ত শুরু করেছে।অভিযুক্ত ছাত্রদের একজনের সঙ্গে কথা বলে বাকি ছাত্রদের চিহ্নিত করার চেষ্টা করছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ওই ছাত্রদের বিরুদ্ধে যদি অভিযোগ প্রমানিত হয় তাহলে তাদের পরীক্ষা বাতিল করা হবে।জানা গিয়েছে ছয় মার্চ একাদশ শ্রেনীর বোর্ডের কম্পিউটারে সায়েন্সের লেখা পরীক্ষা ছিল। ৯ মার্চ ফেসবুকে আপলোড হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে পরীক্ষার দিন কিছু ছাত্র বই খুলে পরীক্ষা দিচ্ছে ।আর সেই ভিডিওটি ইতিমধ্যে সোস্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে।আর এই ভিডিও ঘিরে শহরে শিক্ষক,ছাত্র মহলে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। বিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে একাদশ শ্রেনীর বোর্ডের কম্পিউটার সায়েন্সের থিওরি পরীক্ষা ছিল।বোর্ড থেকেই প্রশ্নপত্র এসেছে।বিদ্যালয়ের শিক্ষকরাই পরীক্ষায় গার্ড হিসেবে ছিলেন।পরীক্ষার হলে মোবাইল নিয়ে যাওয়া নিষিদ্ধ।কিন্তু তা সত্ত্বেও কিভাবে ছাত্ররা পরীক্ষার কক্ষে মোবাইল নিয়ে ঢুকল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।তার সাথে পরীক্ষা চলাকালিন কিভাবে তারা নজরদারি এড়িয়ে ভিডিও করল তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। যদিও এই বিষয়ে কেকেআই ইন্সটিটিউটের প্রধান শিক্ষক অনুপ কুমার দে বলেন“ আমরা একটি ছাত্রকে চিহ্নিত করতে পেরেছি।তার সাথে কথা বলেছি।মনে হচ্ছে কিছু একটা হয়েছে। বাকি ছাত্রদের সাথে ওই ছাত্রটিকে বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। পরীক্ষাকেন্দ্রে মোবাইল আনা নিষিদ্ধ।বোর্ডের পরীক্ষা ছিল।অভিযোগ প্রমান হলে ওই ছাত্রদের পরীক্ষা বাতিল করা হবে।”

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।