প্রথম পাতা

নোটবন্দি নিয়ে কংগ্রেসের সুরেই ফের আক্রমণ মমতার

নিজস্ব প্রতিনিধি— মঙ্গলবার এক সাংবাদিক সম্মেলন করে কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল একটি স্টিং অপারেশনের প্রসঙ্গ টেনে নোটবন্দি নিয়ে মোদি সরকারকে আক্রমণ করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে নোটবন্দি নামক বিশাল আর্থিক কেলেঙ্কারির তদন্ত করা হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই আক্রমণের ধারা বজায় রেখে এদিন উত্তরপ্রদেশে এক বিজেপি নেতার নোটবন্দির পর কালো টাকা সাদা করার প্রসঙ্গে মমতা বলেন, আমি তো আগেই বলেছি, নোটবন্দি দেশের মধ্যে একটা বড় কেলেঙ্কারি। নোটবন্দি ঘোষণা হওয়ার ৩৫ মিনিটের মধ্যে আমি সরব হয়েছিলাম। এখন বিজেপি ক্ষমতায় আছে বলে কেউ বুঝতে পারছে না, কিন্তু পরে দেশের মানুষ ঠিকই বুঝতে পারবে, এই নোটবন্দি দেশের অর্থনীতিতে কত ক্ষতি করেছে।

মঙ্গলবার নবান্নে সৌজন্য সাক্ষাৎকারে এসেছিলেন শাহরুখ খান। তিনি ভিকট্রি চিহ্ন দেখিয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভালো ফল করার জন্য আগাম শুভেচ্ছা জানিয়ে যান। এদিনও মমতার কণ্ঠে ছিল বিজেপি’র নীতিনৈতিকতার বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক সুর। অন্যদিকে এই লোকসভা নির্বাচনে লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলি মনোহর যোশীকে টিকিট না পাওয়া নিয়ে তিনি রীতিমতো সরব হন। বলেন, ‘বিজেপি বর্ষীয়ানদের সম্মান জানায় না। টুডে, আই অ্যাম ফিলিং স্যাড ফর আডবানিজি’। বর্ষীয়ান রাজনীতিকদের অমর্যাদা করাটা যে বিজেপি’র দস্তুর, তা নিয়ে নাম করে মোদিকে বেঁধেন তৃণমূল নেত্রী। বলেন, যে আডবানিজি, বাজপেয়ীজি ছিলেন মেন্টর। এখন ক্ষমতা পেয়ে বড় হয়ে গিয়েছে, তাই আর প্রবীণদের দরকার পড়ছে না। মমতা বলেন, নবীন প্রজন্ম এবং মহিলাদের অগ্রাধিকার দিতে হবে, তাই বলে বলে প্রবীণদের অগ্রাহ্য করা উচিত নয়। আদবানিজি, যোশীজির জন্য খারাপ লাগছে। আমাদের কাছে কিন্তু ওল্ড ইজ গোল্ড। মমতা বলেন, কাকে টিকিট দেওয়া হবে সেটা বিজেপি’র দলীয় সিদ্ধান্ত ঠিকই, কিন্তু প্রবীণ রাজনীতিকদের সম্মান না দেওয়ায় আমি ব্যক্তিগতভাবে দুঃখপ্রকাশ করছি।

বিমানবন্দরে অভিষেকের পরিবারের কাছে সোনা মেলার বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করায় মমতা সাফ জানিয়ে দেন, এই বিষয়ে তাঁর কিছু বলার নেই। বিমানবন্দরে অভিষেকের স্ত্রীর কাছে দু-কেজি সোনা ধরা পড়া নিয়ে যখন বিরোধীরা আক্রমণ করছে তৃণমূলকে, সেই প্রশ্ন সুকৌশলে এড়িয়ে গেলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার নবান্নে এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে মমতা বলেন, ‘প্লিজ ডোন্ট আস্ক মি, আই অ্যাম নট কনসার্নড।’

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।