কলকাতা জেলা প্রথম পাতা

নিজেদের গড় ছাড়তে অনড় প্রদেশ কংগ্রেস! রাহুলের সাথে বৈঠকের পরেও অধরাই থাকল ‘জোটের’ জট

নিজস্ব সংবাদদাতা: দিল্লির তলবে তড়িঘড়ি দিল্লি গিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বাংলার জোট নিয়ে বৈঠকও করেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। নানা মহলে প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে যে রাজ্যে আদৌ কি কংগ্রেস-সিপিএম জোট সম্ভব? কংগ্রেসের আবদারের কাছে নতিস্বীকার করে জোট করবে আলিমুদ্দিন? রাহুল গান্ধীর সঙ্গে সোমেন মিত্রের বৈঠকের পর প্রদেশ কংগ্রেসের অবস্থান নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই উঠছে প্রশ্ন। 
২০১৪ সালে রায়গঞ্জ ও মুর্শিদাবাদ আসনে জিতেছিল সিপিএম। বামেদের সঙ্গে জোট সমঝোতায় এবার ওই দুটি আসন দাবি করছে কংগ্রেস। প্রদেশ নেতৃত্বের যুক্তি, ওই দুটি আসনে তাদের জেতার সম্ভাবনা উজ্জ্বল। বুধবার দিল্লিতে রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বৈঠকেও সে কথাই বলেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। 

রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বৈঠকে সোমেন মিত্র স্পষ্ট জানিয়েছেন, মুর্শিদাবাদ ও রায়গঞ্জ আসন কোনওভাবে ছাড়া যাবে না। ওই দুটি আসনেই কংগ্রেসের জেতার সম্ভাবনা বেশি। সিপিএমের সংগঠন ওখানে আগের মতো আর নেই। দরকার হলে ৪২টি আসনেই প্রার্থী দেবে কংগ্রেস।জানা গিয়েছে, সোমেনের কথা শোনার পর রাহুল কথা বলবেন সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরির সঙ্গে।

জানা গিয়েছে, রাহুল গান্ধীকে সোমেন মিত্র বলেছেন, ওই দুটি আসনে চতুর্মুখী লড়াই করে বাকি আসনে জোটের ক্ষেত্রেও আপত্তি নেই বিধানভবনের। কিন্তু কংগ্রেস ওই দুটি আসনে লড়তে চায়। কারণ সম্ভাবনা আছে। দিল্লিতে সিপিএম সাধারণ সমাপদক সীতারাম ইয়েচুরি জানিয়েছেন, “আমরা আমাদের বক্তব্য জানিয়ে দিয়েছি। এ বার কংগ্রেস কী করবে ঠিক করুক।”সূত্রের খবর সোমেন মিত্র রাহুল গান্ধীকে জানিয়ে দিয়েছেন, যে চারটি আসনে গত ভোটে কংগ্রেস জিতেছিল, সে কটিতে এ বারও জিতবে। অর্থাৎ বহরমপুর, জঙ্গিপুর, মালদা উত্তর এবং মালদা দক্ষিণ জেতার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। প্রসঙ্গত, আগামী মঙ্গলবার রাজ্য বামফ্রন্টের বৈঠক রয়েছে। এঁর মধ্যে আবার বাম শরিক ফরওয়ার্ডব্লক একেবারেই মানতে চাইছে না কংগ্রেসের সঙ্গে জোট। কংগ্রেসের সঙ্গে জোটের জন্য শরিকদের সঙ্গেও মনোমালিন্যে জড়িয়েছে আলিমুদ্দিন। জেতা দুটি আসন ছেড়ে জোটে গেলে তা দলের জন্য মোটেই ভাল বিজ্ঞাপন হবে না বলে মানছে আলিমুদ্দিন।এখন দেখার দিল্লির হস্তক্ষেপে আদৌও রাজ্যে সিপিএম –কংগ্রেসের জোটের জট খোলে কিনা।

 

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।