কলকাতা জেলা প্রথম পাতা

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় রইল সেই তারকাদের ট্র্যাডিশনই! চমক দেখালেন মমতা

নিজস্ব প্রতিনিধি: তৃণমূলে বহাল রইল তারকা প্রার্থীর ট্র্যাডিশন! ‌মঙ্গলবার কালীঘাটে বাংলার ৪২ টি আসনে তৃণমূল প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে দেখা গিয়েছে গতবারের মতোই এবারও চারজন বাংলা সিনেমার চিত্র তারকা স্থান পেয়েছে। যাদবপুরের মতো আদ্যোপান্ত একটি সম্ভ্রান্ত লোকসভা আসনে মিমি চক্রবর্তীর মতো একজন অল্প বয়সী অভিনেত্রীকে প্রার্থী করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ১৯৮৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে সিপিএম প্রার্থী সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়কে হারিয়ে এই আসন থেকেই রাজনৈতিক জীবনের উত্থান হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। চমক এখানেই থেমে থাকেনি, বসিরহাট কেন্দ্রে ইদ্রিস আলীকে হঠিয়ে টিকিট দেওয়া হয়েছে অভিনেত্রী নুসরাত জাহানকে। প্রত্যাশা মতোই ঘাটালে আরেকবার তৃণমূল প্রার্থী হওয়ার সুযোগ পেয়েছেন অভিনেতা সুপারস্টার দেব। আসন বদল হলেও টিকিট দেওয়া হয়েছে মুনমুন সেনকে। গতবার বাঁকুড়ার মত মসৃণ আসনে তাঁকে প্রার্থী করা হলেও এবার পাঠানো হয়েছে আসানসোল। বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা গায়ক বাবুল সুপ্রিয় বিরুদ্ধে তাকে লড়তে হবে। তবে মেদিনীপুর আসন থেকে এবার আর টিকিট দেওয়া হয়নি অভিনেত্রী সন্ধ্যা রায়কে। এদিন তাকে পাশে নিয়েই ওই আসানে রাজ্যসভার তৃণমূল সাংসদ মানস ভুঁইয়ার নাম ঘোষণা করেছেন মমতা। বীরভূমের তৃতীয়বারের জন্য তৃণমূল প্রার্থী হয়েছেন অভিনেত্রী শতাব্দী রায়। যদিও তার ক্ষেত্রে বিশেষ আপত্তি ছিল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের। লোকসভা এলাকা ও সংসদের অন্দরে ভালো পারফরম্যান্সের জেরেই তাঁকে প্রার্থী করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত দুই বার কৃষ্ণনগর আসন থেকে সাংসদ অভিনেতা তাপস পাল কে এবার টিকিট দেওয়া হয়নি।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।