জেলা প্রথম পাতা

জেলা যুব সংগঠনকে আরও মজবুত রাখতে, একাধিক প্রন্থা অবলম্বন করেছে ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব

নিজস্ব প্রতিনিধি : লোকসভা নির্বাচনে শাসক দলের ভোট বাক্সে যাতে কোনও রকম ভাবে ধস না নামে তাই নিজেদের ভোট ব্যাঙ্ক অটুট রাখতে একাধিক প্রন্থা অবলম্বন করেছে ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। এবারে ছাত্র, যুব সম্মেলনের আগে জেলা জুড়ে বিভিন্ন বুথ স্তরে যুব নেতৃত্বের ডাটা ব্যাঙ্ক সংগ্রহ করার কাজ শুরু করবে। ঝাড়্গ্রাম জেলার বিভিন্ন ব্লকের সমস্ত বুথ থেকে যুব নেতৃত্বের পাঁচ জনের নামের তালিকা জমা পড়বে জেলা স্তরে।সেই তালিকা গুলিতে ওই সব নেতৃত্বের শিক্ষাগত যোগ্যতা,বয়স,কত ধরে  তারা  রাজনীতি করছে এবং সংশ্লিষ্ট বুথের নানা তথ্য সম্বলিত সেই তালিকা তৈরি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তৃনমূলের যুব নেতৃত্ব।লোকসভা ভোটের আগে ঝাড়গ্রাম জেলা জুড়ে সংগঠনকে মজবুত করতে এবং বিজেপিকে ঠেকাতে এইভাবে নেতৃত্ব তুলে আনার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।কিছুদিন আগে দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঝাড়গ্রাম জেলার  তৃণমূল কোর কমিটির নেতৃত্বদের নিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসেছিলেন।জেলার জনপ্রতিনিধিরা তৃণমূল স্তরে গ্রামে গিয়ে মানুষের সাথে কাজ করছে না  এবং সরকারি বিভিন্ন প্রকল্প গুলির প্রচারও সেইভাবে হচ্ছে না বলে উষ্মা প্রকাশ করেছিলেন মহাসচিব বলে দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে।দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে ওই দিনের বৈঠকে ঝাড়গ্রাম জেলার যুব এবং ছাত্রদের দলীয় সংগঠন বাড়ানো,মজবুত করা সহ সরকারি বিভিন্ন প্রকল্প গুলি যাতে ব্যাপক হারে প্রচার হয় বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।জেলা যুব তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে দলের মহাসচিবের নির্দেশের পরই চোদ্দ মার্চ ঝাড়গ্রাম জেলা যুব,ছাত্র সম্মেলন হবে।জামবনি ব্লকের টুলিবড়ে হবে সেই সম্মেলন।আর সম্মেলনের আগে ঝাড়গ্রাম জেলার ৭৯টি গ্রামপঞ্চায়েতের প্রতিটি বুথ থেকে পাঁচজন করে যুব নেতাদের তথ্য সম্বলিত তালিকা প্রস্তুত হয়ে জেলায় জমা পড়বে।নেতৃত্বের বক্তব্য এরফলে করা যুব তৃণমূলের হয়ে কাজ করছে তার একটা ডাটা তৈরি হয়ে যাবে।চোদ্দ মার্চ সম্মেলন সফল করার জন্য ইতিমধ্যেই জেলা জুড়ে চলছে প্রস্তুতি বৈঠক।চলছে ব্যাপক হারে প্রচার।ঝাড়গ্রাম জেলা যুব তৃণমূলের সভাপতি দেবনাথ হাঁসদা বলেন ” দলের মহাসচিবের নির্দেশ মেনেই চৌদ্দ মার্চ যুব,ছাত্র সম্মেলন হচ্ছে।জামবনির টুলিবরে হবে সম্মেলন।তার আগে জেলার প্রতিটি বুথ স্তর থেকে তথ্য সম্বলিত পাঁচ জন করে নামের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে।”ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি সত্যরঞ্জন বারিক বলেন “দলের মহাসচিবের নির্দেশ মেনেই আমরা এক যোগে কর্মসুচি হাতে নিয়েছি।চোদ্দ মার্চ সম্মেলনে জেলার প্রতিটি বুথ থেকে ছাত্র,যুবরা যোগ দেবে।চলছে বুথ ভিত্তিক ডাটা সংগ্রহ।” উল্লেখ্য গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে ঝাড়্গ্রাম জেলায় শাসক দলের ভোট বাক্সে বিজেপি থাবা বসিয়েছিল। এরপর থেকেই শাসক দলের জেলা সংগঠনিকের একাধিকবার নেতৃত্ব বদল করা হয়েছে। এমনকি ডেমেজ কন্ট্রোল করার জন্য ময়দানে নামে জেলা ও রাজ্য নেতৃত্ব। তাই লোকসভা ভোটে যাতে বিজেপির প্রভাবকে ঠেকাতে আগে ভাগেই জেলা থেকে ব্লক নেতৃত্বকে নিয়ে একাধিক বার বৈঠক সেরেছেন রাজ্য নেতৃত্ব।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।