দেশ প্রথম পাতা

চোখ বন্ধ, তবু মনে জোর! শহিদ পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে ১১০ কোটি টাকা প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে পাঠাতে চান দৃষ্টিহীন গবেষক

নিজস্ব সংবাদদাতা: ১৪ ফেব্রুয়ারি দুপুরে পুলওয়ামার অবন্তীপোরায় সিআরপিএফ কনভয়ের উপর আত্মঘাতী হামলা চালায় জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিরা। এর ফলে শহিদ হন দেশের ৪৯ জন জওয়ান।প্রতিবাদে গর্জে ওঠে গোটা দেশ। সবার মুখে একটাই বক্তব্য ছিল,পাকিস্তানকে উচিত জবাব দিতে হবে। বদলা চাই। প্রধানমন্ত্রীর সবুজ সংকেত পাওয়ার পরেই বদলা হিসেবে ২৬ তারিখ ভোররাতে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বালাকোটে থাকা জঙ্গি ট্রেনিং ক্যাম্পে এয়ার স্ট্রাইক করে ভারতীয় বায়ুসেনা। কিন্তু পুলওয়ামার জঙ্গি হামলায় শহিদ জওয়ানদের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এসেছে গোটা দেশ। সরকারের পাশাপাশি আর্থিক সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন থেকে সাধারণ মানুষও।সেলিব্রেটি তারকারাও শহিদ পারিবারগুলির পাশে দাঁড়িয়েছেন।তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে গিয়েছে একটি ঘটনা। জন্ম থেকেই দৃষ্টিহীন।তবু জীবনযুদ্ধে কোনদিনও হারতে শেখেন নি। তাই দৃষ্টি না থাকলেও সমস্ত প্রতিকুলতাকে জয় করে আজ তিনি গবেষক। তিনি রাজস্থানের কোটার ৪৪ বছর বয়সী মুর্তাজা এ হামিদ। শহিদ সিআরপিএফ জওয়ানদের পরিবারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় ত্রাণ তহবিলে ১১০ কোটি টাকা অনুদান দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করলেন তিনি। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে ইমেল করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দেখার আবেদন করেন তিনি। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী ন্যাশনাল রিলিফ ফান্ডে ১১০ কোটি টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথাও জানান। এপ্রসঙ্গে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, “এই দেশের প্রতিটি নাগরিকের রক্তে আমাদের মাতৃভূমি রক্ষার কাজে শহিদ হওয়া জওয়ানদের সাহায্য করার ইচ্ছা আছে। সেখান থেকেই আমি অনুপ্রাণিত হয়েছি।”

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।