প্রথম পাতা

কুর্মিদের পাশে থাকলেই ভোট, নচেৎ নয় : সমাজ

নিজস্ব প্রতিনিধি— ভোট বয়কট মানে সারা রাজ্য ও দেশের ক্ষতি। কুর্মি সমাজকে সাহায্য করতে যে দল এগিয়ে আসবে আমরা তাদেরকে পূর্ণ সমর্থন করব। নিজেদের দাবিদাওয়া নিয়ে পুরুলিয়াতে সদরিয়া সাড়ান জডুআহি তথা জমায়েত হয়। সেই জমায়েতে আদিবাসী কুর্মি সমাজ মানুষের মধ্যে যথেষ্ট সাড়া ফেলেছে। সোমবার লালগড়ে সঞ্জীব সংঘের মাঠে আদিবাসী কুর্মি সমাজের পক্ষ থেকে প্রকাশ্য সভা হয়। লালগড়ের মতো জায়গা থেকে রাজনৈতিক দলগুলির উদ্দেশে বার্তা দেওয়া হবে। সর্বশেষ সভার পর ৩০ মার্চ সমাজের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে জঙ্গলমহলের কুর্মি সমাজ কোন দলের প্রার্থীকে সমর্থন জানাবে।

ইতিমধ্যে সংগঠনের নেতৃত্ব জানিয়েছেন, তৃণমূলের পক্ষ থেকে ঝাড়গ্রাম লোকসভা আসনে যাঁকে প্রার্থী করা হয়েছে তাঁকে মেনে নেয়নি সমাজ। নেতৃত্বের দাবি যারা কুর্মিদের তপসিলিভুক্ত হওয়ার দাবির বিরোধিতা করে তারা কখনো তাদের পাশে থাকবে না। আদিবাসী বুর্ম সমাজ কুর্মি জাতিকে পুনরায় তপশিলি তালিকাভুক্ত করা, কোড সহ সারনা ধর্মের স্বীকৃতি কুর মালি ভাষাকে সংবিধানে অষ্টম তপশিলে অন্তর্ভুক্ত করা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন চালাচ্ছে। দিল্লিতে ধরনা পর্যন্ত দিয়েছে। এবার ঝাড়গ্রাম লোকসভা আসনে শাসক দলের প্রার্থী নিয়ে একেবারেই সন্তুষ্ট নয় তারা। তারা অপেক্ষায় রয়েছে রাজনৈতিক দলের ইস্তেহারের দিকে। তার আগে বেশ কয়েকটি জমায়েত করে সমাজ জঙ্গলমহলের কুর্মিদের দাবিদাওয়াগুলি আবারও প্রকাশ্যে আনতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

সমাজের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ১৯ মার্চ পুরুলিয়ার পর ২৫ মার্চ ঝাড়গ্রামের লালগড়, ২৭ মার্চ বাঁকুড়া জেলার রায়পুর এবং ২৯ মার্চ পশ্চিম মেদিনীপুরের খেমাশুলিতে প্রকাশ্য সমাবেশ হবে। জমায়েতগুলির পরেই ৩০ মার্চ চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন আদিবাসী কুর্মি সমাজের নেতৃত্ব। সমাজের পক্ষ থেকে আগেই বলা হয়েছিল ৪২ শতাংশের বেশি কুর্মি ভোট সেই দিকেই যাবে, যে দল তাদের পাশে থাকবে। সমাজের রাজ্যে সম্পাদক রাজেশ মাহাত বলেন, সুপ্রাচীন, সুবিশাল অবহেলিত কুর্মি জনজাতির সত্তর বছরের দাবির বিষয়ে লাগাতার আন্দোলনের পরেও দেশের কোনও দলই তেমন গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করেনি। অথচ ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা, অসম সহ পশ্চিমবঙ্গের বৃহৎ কুর্মি সমাজকে নিয়ে বছরের পর বছর রাজনীতি চলছে। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে প্রত্যেকটা দলকে এই বার্তা দিচ্ছে, যে দল কুর্মিদের কথা বলবে দাবি পূরণে সচেষ্ট হবে সমাজ তাদের পক্ষেই থাকবে। মিথ্যে প্রতিশ্রুতিতে আমরা ভুলছি না।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।