প্রথম পাতা

কুণাল সারদা ইস্যুতে রাজীব কুমারকে স্বস্তি দিতে নারাজ

নিজস্ব প্রতিনিধি— সারদা মামলায় কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে এখনই স্বস্তি দিতে নারাজ প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ কুণাল ঘোষ। মঙ্গলবার এই মামলায় রাজীব কুমারকে মূল মামলার বিচারের আওতায় আনতে কুণাল বারাসতের বিশেষ আদালতে আবেদন করেছেন বলে খবর। ইতিমধ্যে সেই আবেদলের ভিত্তিতে আদালত তা নথিভুক্ত করেছে বলেও খবর মিলেছে। তবে এ বিষয়ে কুণাল মুখে যাই বলুন না কেন, রাজীব কুমার সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি পাচ্ছে। কিনা, সেটাই বিষয়। এদিন বিশেষ আদালতে সারদার মূল মামলায় জড়িয়ে পড়ায় এই ইস্যুই এখন গলার কাটা হয়ে দেখা দিতে চলেছে রাজীব কুমারের, তা বলাই বাহুল্য। কুণাল জানান, এর আগেই সিবিআই সুপ্রিম কোর্টের কাছে হলফনামায় উল্লেখ করেছিল যে রাজীব কুমার সিটের প্রধান থাকাকালীন সারদা মামলার অনেক তথ্য লোপাট করার চেষ্টা করেছেন। রাজীব কুমারের নেতিবাচক ভূমিকার বিষয়টিও জানানো হয়। এই হলফনামার প্রতিলিপি সহ বিশেষ আদালতের মূল মামলার বিচারের আওতায় রাজীব কুমারকে আনতেই এদিনের আবেদন বলে জানিয়েছেন কুণাল ঘোষ।

প্রসঙ্গত, শিলংয়ে গত ১১ ফেব্রুয়ারি সারদা মামলায় রাজীব কুমারকে কুণাল ঘোষের মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হয়। এরপরে কুণাল বিস্ফোরক মন্তব্য করে বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের সময় কিছু পুলিশ অফিসারদের নাম উঠে আসে। যাদের কারও কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন রাজীব কুমার, যা তিনি স্বীকারও করেন। এর পরবর্তীতেই তিনি বারংবার নিশানায় রাখেন রাজীব কুমারকে।

উল্লেখ্য, এর আগে সারদা মামলায় প্রমাণ লোপাটের অভিযোগে জেরা করতে রাজীব কুমারের বাড়িতে যায় সিবিআইয়ের একটি দল। সেই সময় উপযুক্ত অনুমোদনপত্র না থাকার অভিযোগে সিবিআই আধিকারিকদেরই গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিশ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তোলপাড় হয়ে যায় জাতীয় রাজনীতি। কিন্তু এরপর পুলওয়ামা হামলা, নীরব মোদির মতো ইস্যুতে আবারও ঝিমিয়ে যেতে চলেছিল সারদা ইস্যু। লোকসভা ভোট যখন দরজায় কড়া নাড়ছে এবং একের পর এক নেতা দল বদল করে বিজেপিতে নাম লেখাচ্ছেন, তখন প্রাক্তন সাংসদ কুণালের এদিনের আবেদন যথেষ্ট প্রাসঙ্গিক বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।