Uncategorized

অ্যাম্বুলেন্স না মেলায়, স্কুটারে করে হাসপাতালে যাওয়ার পথে মৃত্যু বৃদ্ধের ।

অ্যাম্বুলেন্স না মেলায়, স্কুটারে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় এক বৃদ্ধের। আর এই ঘটনাই চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে ইন্দোরের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার প্রতিচ্ছবি। ওই বৃদ্ধের মৃত্যুর পর অভিযোগ উঠেছে, সময়ে অ্যাম্বুলেন্স মেলেনি। মৃতের নাম পান্ডু চন্দনে (৬০)। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, গত সোমবার শ্বাসকষ্ট শুরু হওয়ায় তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল হাসপাতালে। কিন্তু সেখানকার চিকিৎসকরা কিছু ওষুধ দিয়ে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। বুধবার ফের তাঁর শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। অভিযোগ, অ্যাম্বুলেন্স চেয়েও মেলেনি। অগত্যা স্কুটারে বসিয়ে এমওয়াই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। এই ঘটনায় প্রশাসনের বিরুদ্ধে আঙুল তুলেছে মৃতের পরিবার। তাঁদের বক্তব্য, করোনা আতঙ্কে অ্যাম্বুলেন্স দেওয়া হয়নি তাঁদের। যদিও এমওয়াই হাসপাতালের সুপার বলেছেন, এই ধরনের অভিযোগ ভিত্তিহীন। তিনি আরও জানিয়েছেন, মৃত ব্যক্তির করোনা ছিল কিনা তা স্পষ্ট নয়। মৃত্যুর পর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। তাঁর পরিবারের সদস্যদেরও কোভিড-১৯ পরীক্ষা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।কয়েকদিন আগে ইন্দোরে একই ঘটনা ঘটেছিলো বলে অভিযোগ উঠেছিল।শেখ হামিদ নামের এক
বৃদ্ধের স্কুটারে করে হাসপাতালে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয়। এক্ষেত্রেও সময়ে অ্যাম্বুলেন্স না মেলার অভিযোগ উঠেছিল। প্রসঙ্গত, মধ্যপ্রদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯০০তে পৌঁছেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২০০ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ মিলেছে। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫৩ জনের। মোট আক্রান্তের প্রায় ৭০ শতাংশই ইন্দোরের।

Spread the love